পাগলী (প্রথম পর্ব) - Mahbub Ullah

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, September 16, 2019

পাগলী (প্রথম পর্ব)

পাগলী (প্রথম পর্ব)

লেখা- নাসির ইসলাম মাহিম


ভোরবেলা কম্বল মুড়ি দিয় ঘুমাইতেছি। এমন সময় কে যেনো পানি মারলো। ঠুস করে ঘুমটা ভেঙ্গে গেলো। এই সাত-সকালে সুন্দর স্বপ্নটির ভেতর জল ঢেলে দিল। মেজাজটা গেলো খারাপ হয়ে মুখটা কালো করে, বন্দরের মতো বাঁকিয়ে টেলিসামাদ মার্কা ভাব নিয়ে বল্লাম,

কে.. কে -রে..!
বাবু ঘুম ভাঙ্গছে তোমার। আমি তো ভাবলাম আর একটু পানি ঢালতে হবে। মহারাজার ঘুম ভাংঙ্গবেনা।
 এই আপনি এখানে কেনো। আমার রুমে কি করছেন?
তো আমি না আসলে আর কে আসবে শুনি? নাকি অন্য কারও আশার কথা ভাবছ বাবু!
আর আমাকে বাবু, বাবু বলার কারণটা কি হু?
স্বামীরে আদর করে বাবু বলে। তাই আমিও আদর করে বাবু বলছি।
-ও মাই গড....! (আস্তে করে)
কিছু বললেন? 
কই নাতো। আপনি কেনো আমার রুমে?
কেনো? আমি আসতে পারি না?
আপনি কেনো আসবেন শুনি?
কয়েক দিন পর তো আমাদের বিয়ে। বিয়ে হলে এটা আমার রুম হবে। তো এখন আসলে সমস্যা কি আপনার হু..?
কি বলেন..?
ঠিকই বলি কারণ আমি আপনার।
আপনি আমার কি..?
যাহ্, আমার বুঝি লজ্জা লাগে না। বউ হবো আরকি!
—আহারে কি শখ! পেতনী, শাঁকচুন্নি বলে কি। আমার বউ হবে।
বুজতে হবেনা কার বউ হবো। আর পেতনী, শাঁকচুন্নি যাই বলেন না কেনো আমার তাতে কিছুই যায় আসে না।
অনেক পাকনামি হইছে। যান এখান থেকে এখন।
আরে আরে আমি যাব কেনো হ্যা। আমি আমার ফিউচার স্বামীর রুমে থাকবো আপনি বাহির করার কে হ্যা, শুনি?
.
ডাইনির সাথে কথায় পারবোনা। মাকে বলে আপাত তাকে তাড়াতে হবে। গলা উঁচু করে মাকে বললাম,
-মা.. ও মা। শুনছ।
হ্যা, শুনছি। কি হয়েছে বল।
এই ঝগড়াটে ডাইনীটা আমার রুমে কেনো?
কেনো বাবা কি হইছে। আর ও থাকলে সমস্যা কি তোর?
-আ...
.
মাঝ পথে ব্রেক মেরে দেয় ডাইনিটা কথা বলে,
কি হলো। এখন মাকে ডাকেন কেনো?
মা কে ডাকবো না কেনো?
স্বামী স্ত্রীর মাঝে মাকে ডাকতে নেই। আর মাকে বলে এসেছি, তোমার ছেলে একটু আদর করে আসি। মা কি বলেছিল জানো?
.
আমি চোখটা বড়সড় করে তাকিয়ে আছি। মেয়েটা বলে কি। কত্তো বড় ফাজিল। আমার রাগকে পাত্তা না দিয়ে বললো,
মা বলেছিল, তোর লজ্জা করে না দুষ্ট। আমাকে এসব বলতে। আমি বললাম, তুমি যে কি বলো না। তুমি আমার বেষ্ট ফ্রেন্ড। তোমাকে যা ইচ্ছা তাই বলতে পারি, শেয়ার করতে পারি।
তুই পারিস বটে মা।
আমি আগে যে-রকম ছিলাম সেইরকম থাকবো। বুঝলে কিছু।
যা এবার বাঁদর ছেলে টার ঘুম ভাংঙ্গিয়ে আয়।
তখন আমি তোমাকে পানি ঢেলে দেই। অবশ্য দোষটা আমার না। দোষটা আন্টির ছিল। আমাকে বকতে পারবেনা।
জ্বি, দোষটা আপনারও না, মা এ-র দোষ না। দোষ হলো আমার কপালের। সাতসকালে গোসল করিয়ে দিল।
দেখুন মিঃ, গোসল এমনিতে করতে হত। কলেজে যেতে হত গোসল করে। হয়তো, এক ঘন্টা পর। তাই আজ অলরেডি আগে করে নিচ্ছেন।
ঠিক আছে।
প্লিজ এখন এখান থেকে যান। গোসল করে ফ্রেশ হয়ে খেতে আসুন মহারাজ।
 যাবো আগে একটু আদর করি। সকাল-সকাল ঘুম ভাঙ্গানোর মজা দেখাচ্ছি।
এই এই আমার কাছে আসবেন না একদম বলে দিলাম। নাহলে চিৎকার করব!
— হুঁ উমম..উমমম..হুউুঁমমমহ (Kiss)
.
হায় হায় বাচ্চা ছেলেটা বুঝি বড়ই হয়ে গেলো। আমাকে লিপ কিস করল।
তারপর.. তারপর তানিম চলে গেলো। আমি হা করে শুধু তাকিয়ে আছি বাচ্চা ছেলেটা এটা কি করলো।

ও আচ্ছা পরিচয় টা দি। আমি তানিম। বাবা মায়ের আদরের সন্তান। আর এতোক্ষন যার সাথে কথা বলছিলাম সে হচ্ছে আমার মায়ের ছোট বোনের মেয়ে। নাম রাকা। দেখতে মাশআল্লাহ কিন্তু আমার উপর একটু attractive.

আমি আবার এতো কিছু বুঝিনা। বাচ্চা পোলা তো। একটু পর কলেজ যেতে হবে। তাই ফ্রেশ হচ্ছি। খেয়ে রেডি হয়ে কলেজে যাবো।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad

Responsive Ads Here